কুষ্টিয়ার সীমান্তে বানভাসী নিরন্ন মানুষের হাতে হাতে ত্রাণ তুলে দিলেন মানবতার ডিসি আসলাম হোসেন

77
কুষ্টিয়া অফিস: কুষ্টিয়ার সীমান্তাঞ্চল দৌলতপুর উপজেলার রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের মুন্সিগঞ্জে বৃষ্টিভেজা দিনে বানভাসী নিরন্ন মানুষের হাতে হাতে ত্রাণের বস্তা তুলে দিলেন মানবতার ডিসি মোঃ আসলাম হোসেন। এ সময় তিনি বলেন, একজন মানুষকেও না খেয়ে মরতে দেবোনা। খাবারের কোন সংকট হতে দেবো না। খাবারের জন্য কষ্ট পাবে তা হবে না। তিনি আরও বলেন, আমার ইউএনও, পিআইও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে তালিকা করে প্রত্যেককে ত্রাণের আওতায় আনা হয়েছে। একজনকেও বাইরে রাখা হয়নি। গতকাল ত্রাণ বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন দৌলতপুর ইউএনও শারমিন আক্তার, জেলা পরিষদ সদস্য নাসির উদ্দিন মাস্টার, পিআইও সাইদুল ইসলাম, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাব কেপিসির সভাপতি রাশেদুল ইসলাম বিপ্লব, সহ সভাপতি জামিল হাসান খান খোকন, কোষাধ্যক্ষ মিলন উল্লাহ, রামকৃষ্ণপুর ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজ মন্ডল প্রমূখ।
বানভাসী নারী, পুরুষ, কিশোর-তরুনদের বিশাল লাইন ত্রানের জন্য। এ সময় ষাটোর্ধ্ব এক নারী বলেন, ডিসি সাব খুব ভাল মানুষ। উনি নিজে দাঁড়িয়ে থেকে আমাদের তালিকা করে নিজ হাতে সবার হাতে ত্রানের বস্তা তুলে দিচ্ছেন। আল্লাহ উনার হায়াত দারাজ করুন। বৃষ্টিতে ভিজে আমাদের সাহায্য করলেন যা এর আগে কেউ করেনি বাবা। কেউ খালি হাতে ফিরে যাচ্ছে না। শৃঙ্খলার সাথে সকলেই পাচ্ছে ত্রাণের বস্তা। জেলা প্রশাসক মোঃ আসলাম হোসেন বলেন, এটি আমাদের গুরু দায়িত্ব। বন্যার্তদের জন্য যা যা করণীয় সরকার সব করবে। আজ সকালে জেলা ত্রাণ ও পূণর্বাসন কমিটির জরুরী সভা করেছি। বিষয়টি মন্ত্রনালয়কে জানানো হয়েছে। খাদ্যের কোন ঘাটতি নেই। আমরা পর্যাপ্ত খাবার সরবরাহ করছি। গণমাধ্যমের কাছে আমাদের আহবান কেউ যেন আতংক সৃষ্টি না করে এবং গুজব না ছড়ায়। বরং মানুষ হিসেবে সকলের দায়িত্ব বন্যার্ত অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানো।