দৌলতপুর সীমান্তে রবি নামে এক যুবকের লাশ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিনিধি : কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়ন সীমান্তে রবিউল ইসলাম রবি (৩০) নামে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে বিজিবি। রবিবার সকালে উপজেলার রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের কালু সরকার পাড়া সীমান্তের নোম্যান্স ল্যান্ডের নিকট থেকে লাশটি উদ্ধার করে বিজিবি। সে চিলমারী ইউনিয়নের হায়দারেরচর গ্রামের মানু মন্ডলের ছেলে। স্থানীয়রা জানায়, ১৫৭ সীমান্ত পিলার সংলগ্ন কালু সরকারপাড়া সীমান্তের নীচে এলাকায় একটি লাশ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয় জনগণ রামকৃষ্ণপুর ক্যাম্পের বিজিবিকে খবর দেয়।

তবে কিভাবে সে মারা গেছে তা নিয়ে বিজিবি ও স্থানীয়দের মাঝে মতভেদ রয়েছে। স্থানীয়দের ধারনা বিএসএফ সদস্যদের ছোড়া গুলিতে রবি নিহত হতে পারে। অপরদিকে বিজিবির বলছেন, নদীতে মাছধরাকে কেন্দ্র করে সে খুন হতে পারে। রামকৃষ্ণপুর ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজ মন্ডল ও এলাকাবাসীর ধারণ একদল চোরাকারবারী ভারত থেকে চোরাই পথে ১৫৭ সীমান্ত পিলার সংলগ্ন কালু সরকার পাড়া সীমান্ত এলাকা দিয়ে গরু পাচার করার সময় শনিবার দিবাগত রাতে ভারতের নদীয়া জেলার বাউস মারী থানার ৪৩ ব্যাটালিয়ন বিএসএফ ক্যাম্পের অধিনস্থ বাউসমারী ক্যাম্পের টহলরত বিএসএফ তাদের লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে, এতে রবি গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হলে অপর চোরাকারবারীরা পালিয়ে আসে। তবে বিএসএফের গুলিতে রবি নিহত হওয়ার বিষয়টি বিজিবি অস্বীকার করেছে।

৪৭ বিজিবি ব্যাটালিয়ন অধিনস্থ মহিষকুন্ডি বিজিবি কোম্পানীর অধিনায়ক সুবেদার জাহাঙ্গীর আলম জানান, নদীতে মাছ ধরতে গিয়ে জেলেদের অভ্যন্তরীন কোন্দলে প্রতিপক্ষের হামলায় রবি নিহত হয়েছেন। তার শরীরে মাছ ধরা জোতের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। পরে বিজিবি লাশটি দৌলতপুর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করলে, দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: আজম খান বলেন, শনিবার রাতের যেকোন সময় এই হত্যা কান্ডের ঘটনা ঘটতে পারে। এই হত্যা কান্ডের রহস্য উদঘাটনে পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। ময়না তদন্তের জন্য লাশ পুলিশ প্রাথমিক ভাবে সুরত হাল রেকড করে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মর্গে প্রেরণ করেছে।