নিজের বাল্যবিয়ের প্রতিবাদ জানাতে পুলিশ ক্যাম্পে ছুটে এসেছেন শিলা ।

164

ডৈইলি নিউজ বাংলা : নিজের বাল্যবিয়ের প্রতিবাদ জানিয়ে পুলিশ ক্যাম্পে এসে অভিযোগ জানিয়েছে এক স্কুল ছাত্রী। ওই ছাত্রীর নাম শিলা খাতুন (১৫)। সে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার ইবি থানা এলাকার ঝাউদিয়া ইউনিয়নের মাজপাড়া গ্রামের লাল্টু মিয়ার মেয়ে। সাহসী ওই স্কুল ছাত্রী তার মা এবং চাচার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক বাল্যবিয়ে দেয়ার অভিযোগ এনে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেছেন।

শিলা জানান, ঝাউদিয়া বাজার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮ ম শ্রেণীর ছাত্রী সে। তাকে তার মা শিল্পী খাতুন চাচা সোনা মিয়া চাচাত ভাবী রজনী ও স্বপ্না তাকে কৌশলে নিয়ে যায়। গত ২ মে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারার সিরাজুল ইসলামের ছেলে লিমন (২০) এর সাথে শিলাকে তার মতের বিরুদ্ধে ৪০ হাজার টাকা দেনমহর ধায্য করে বিয়ে দেয়া হয়। কিন্তু কোন কাজীর মাধ্যমে নয়! একটি ভুয়া কাবিন নামায় শিলাকে দিয়ে জোরপূর্বক সাক্ষর করিয়ে নেয় তার চাচা ও ভাবিরা।

ওই সময় নিরুপায় হয়ে স্কুল ছাত্রী শিলা সাক্ষর করেন। পরে বাড়ি ফিরে আজ শুক্রবার সকালে গোপনে স্থানীয় পুলিশ ক্যাম্পে এসে জানায় শিলা। পরে সংবাদ পেয়ে সেখানে ছুটে যান ইবি থানার ওসি রতন শেখ। সে রতন শেখকে দেখে কান্না জরিত কন্ঠে সব কিছু জানায়।

ওসি রতন শেখ জানান, ইতি পূর্বে তিনি বিভিন্ন স্কুল প্রতিষ্ঠানে ভাল্যবিয়ে প্রতিরোধ বিষয়ক কর্মশালা এবং আলোচনা করেছেন। যে কারনে শিক্ষার্থীরা বেশ সচেতন হয়েছে। তার কারনে ওই ছাত্র সাহসীকতার সাথে নিজের বাল্যবিয়ের প্রতিবাদ জানাতে পুলিশ ক্যাম্পে ছুটে এসেছেন। বিষয় টি শুনে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রাহণের আশ্বাস দিয়েছেন। মেয়েটিকে কুষ্টিয়া সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট নিয়ে যাওয়া হয়েছে।