মুন্সীগঞ্জ জেলার শ্রীনগরে উপজেলা ঈদের শপিং কে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে ৫ জন আহত।

57

সাজাদ্দুল আমিন খান ইভান বিশেষ প্রতিনিধি ঃ- মুন্সীগঞ্জের জেলার শ্রীনগরে ঈদের শপিং করতে এসে দোকান মালিকের হামলার স্বীকার হয়েছে । এ হামলার ঘটনায় শহিদ মোল্লা (৩৭), তার স্ত্রী দুলী বেগম (৩০), ছেলে শফিকুল ইসলাম (১৫), ভাতিজা আমির হামজা (৮) ও ভাতিজী সাদিয়া আক্তার (৬) নামে একই পরিবারের ৫ জন আহত হয়েছে। রবিবার দুপুর ১২়,৩০ টার দিকে উপজেলার বালাশুর মোল্লা মার্কেটের ঐশী এন্টারপ্রাইজের মালিক অটল মোল্লা তাদের ওপর এ হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ করেন ভুক্তভোগীরা।

স্থানীয় ও ভুক্তভোগীরা জানান, উপজেলার ভাগ্যকুল ইউনিয়নের নূরু বয়াতীর চর এলাকার শহিদ ফকির তার পরিবারের লোকজন নিয়ে বালাশুর মোল্লা মার্কেটে ঈদের কেনা-কাটা করতে আসে। অটল মোল্লার দোকানে মেহেদী, ফেয়ার এন্ড লাভলী সাবান, আইল্যানসহ কিছু পণ্যর দাম কম বলাতে দোকানদার তাদের ওপর হঠাৎ ক্ষিপ্ত হয়ে কথা কাটাকাটি এক পর্যায়ে এই হামলা চালায় দোকান মালিক । তারা আরো জানান, দোকানের মালিক অটল মোল্লা কাস্টমার শহিদ ফকিরের মাথায় কাঠের টুল দিয়ে আঘাত করে।

এতে করে তার মাথা ফেটে গিয়ে রক্তাক্ত হয়ে তার পরনের জামা লাল হয়ে যায়। এসময় শহিদের স্ত্রী ও বাচ্চারা তাকে বাচাতে আসলে দোকানের মালিকসহ কর্মচারীরা তাদের কেও কিল ঘুষি মেরে আহত করে। পরে আত্মীয়-স্বজনরা আহতদের উদ্ধার করে মুন্সিগঞ্জ শ্রীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। আহত শহিদের স্ত্রী দুলি খাতুন জানান, ঈদের বাজারে যেকোন জিনিসের দামাদামি করতেই পারি। কিন্তু দোকান মালিকের এধরনের আচরণে আমরা আহত হওয়ার পাশাপাশি মনে খুবই কষ্ট পেয়েছি। এবিষয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করবো।

ঐশী এন্টারপ্রাইজের মালিক অটল মোল্লার কাছে জানতে চাইলে হামলা করার বিষয়ে স্বীকার করে বলেন, পন্যর দাম দরের বিষয়ে তারা আমার সাথে খারাপ ব্যবহার করেছে। মার্কেটের মালিক হাসু মোল্লা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, অটল মোল্লা লোক হিসেবে সুবিধাজনক না। মোল্লা মার্কেটের সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব খান বলেন, তার এধরনের আচরণে তাৎক্ষনিকভাবে দোকান বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে শ্রীনগর থানার ওসি মোঃ ইউনুচ আলী জানান, এবিষয়ে অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।