1. zillu.akash@gmail.com : admi2017 :
  2. editor@dailynewsbangla.com : Daily NewsBangla : Daily NewsBangla
ফরিদপুরে বাস-পিকআপ মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩জন - dailynewsbangla
মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১০:৩১ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
বগুড়া আদমদীঘিতে এজেন্ট ব্যাংকে গ্রাহকের টাকা আত্মসাৎ করে ব্যাংক কর্মকর্তা উধাও  নৌপুলিশের নিজ অর্থায়নে জেলেদের মাঝে শুকনা খাবার বিতরণ  হিংসুটে নেতা,কবি,সাহিত্যিক,সাংবাদিক হয়ে দেশ ও জাতির জন্য ভালো কিছু দিতে পারে না রাজশাহীতে প্রান্তিক জনগোষ্ঠিকে আইনী সহায়তায় প্রচার ও প্রসার বাড়াতে হবে: জেলা ও দায়রা জজ কুষ্টিয়া জেলার শ্রেষ্ঠ ওসি নির্বাচিত হয়েছেন ভেড়ামারা থানার অফিসার ইনচার্জ জহুরুল ইসলাম রাজশাহীতে ছোট ভাইয়ের বউকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে ভাসুর কারাগারে গোদাগাড়ীর রফিকুল হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন হলেও ধরা হয়নি আসামী সাত মাসেও সন্ধান মিলছে না প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের চেক বদলগাছীর অন্ধ সাত্তারের হাতে বগুড়ায় সচেতনামূলক ” নো হেলমেট ”  নো ফুয়েল  কার্যক্রম শুরু ভেড়ামারায় ট্রেনের দাবিতে  মানববন্ধন প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত

ফরিদপুরে বাস-পিকআপ মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩জন

ডেইলী নিউজ বাংলা ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল, ২০২৪

ফরিদপুরে বাস-পিকআপ মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩জন

বোয়ালমারী  (ফরিদপুর) প্রতিনিধি : ফরিদপুরের কানাইপুর এলাকায় ঢাকা-যশোর অভিমুখি ইউনিক পরিবহন ও ফরিদপুর অভিমুখি পিকআপভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে একই পরিবারের ৫জনসহ নিহতের সংখ্যা ১৩ জন। এ আগে ঘটনাস্থলে ১১জন ও পরে চিকিৎসাধীন ৫জনের মধ্যে আরো দুইজনসহ মোট ১৩জন মারা গেছে। ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে তিনজন।
দূর্ঘটনার খবর হাসপাতালে ছুটে যান ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক মো. কামরুল আহসান তালুকদার ও পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোর্শেদ আলম। এ ঘটনায় পাঁচ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। নিহত প্রত্যেকের পরিবারকে ৫ লাখ টাকা ও আহতদের প্রত্যেককে ৩ লাখ টাকা দেওয়ার ঘোষণা দেন জেলা প্রশাসক।
আজ মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) সকাল সোয়া ৮টার দিকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের ফরিদপুরের কানাইপুরের এ্যাবলুম রেস্টুরেন্টের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
ফরিদপুরের করিমপুর হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সালাউদ্দিন চৌধুরী হতাহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
প্রত্যক্ষদর্শী কানাইপুরের তেঁতুলতলা এলাকার বাসিন্দা শিক্ষক মোশাররফ হোসেন বলেন, হঠাৎ করে শব্দ পেয়ে রাস্তায় দৌড়ে এসে এই মর্মান্তিক দূর্ঘটনা দেখতে পাই। তবে প্রাথমিক ভাবে জানতে পেরেছি নিহত ও আহতদের বাড়ি বোয়ালমারী ও আলফাডাঙ্গা উপজেলায়। এরমধ্যে আলফাডাঙ্গা এ জেড পাইলট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ফরিদ স্যারের মা, বড় মেয়ে, স্যারের ভাই মিলন, মিলনের স্ত্রী ও ছেলে-মেয়েসহ ৬জন সদস্য ছিলো। তাদের ৫জনই স্পর্টে মারা গেছে। ইউনিক পরিবহন যাত্রী নিয়ে ঢাকা থেকে যশোরের দিকে যাচ্ছিল আর পিকআপ ভ্যানটি আলফাডাঙ্গা ও বোয়ালমারী থেকে ফরিদপুর শহরের দিকে যাচ্ছিল। তবে বাসের যাত্রীরা ভালো আছে।
এ ব্যাপারে ফরিদপুরের করিমপুর হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সালাউদ্দিন চৌধুরী বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলে ১১ জন নিহতের পর আহত অবস্থায় আরো ২জন মারা যাওয়ার খবর পেয়েছি।
এ ব্যাপারে ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক মো. কামরুল আহসান তালুকদার বলেন, এ ঘটনায় পাঁচ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। নিহত প্রত্যেকের পরিবারকে ৫ লাখ টাকা ও আহতদের প্রত্যেককে ৩ লাখ টাকা দেওয়ার ঘোষণা দেন তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো সংবাদ