1. zillu.akash@gmail.com : admi2017 :
  2. editor@dailynewsbangla.com : Daily NewsBangla : Daily NewsBangla
আকিজ বিড়ি কারখানায় শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষে আহত ৫ জন - dailynewsbangla
মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ১২:২১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
বাগমারায় মাছ চুরি মামলার পর অস্ত্র দিয়ে ফাসানোর চেষ্টা বোয়ালমারী উপজেলা পরিষদ নির্বাচন  প্রার্থীদের মধ্যে পথিক বরাদ্দ  বেশি বেশি বই পড়ুন আলোকিত মানুষ হয়ে আলোকিত সমাজ গড়ে তুলুন– বিভাগীয় কমিশনার বগুড়া আদমদীঘিতে জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ উপলক্ষে আলোচনা সভা বগুড়া  আদমদীঘিতে ইউএনও’র মত বিনিময় সভা  সিন্ডিকেটে বরেন্দ্রঞ্চলে ঘন্টায় ঘন্টায় কমছে ধানের দাম দিশেহারা বোরো চাষীরা  দশমিনায় আলোচিত মৌসুমী আক্তার দুলু হত্যা মামলার প্রধান আসামী গ্রেফতারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন বোয়ালমারীতে হেলমেট নাই তো তেল নাই পুলিশের কড়াকড়ি নির্দেশ পাম্পগুলোতে কালের ক্ষয়িষ্ণু ঘাটে আচরণবিধি লঙ্ঘন করায় ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী বুলবুল হাসান কে ৫ হাজার টাকা জরিমানা

আকিজ বিড়ি কারখানায় শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষে আহত ৫ জন

ডেইলী নিউজ বাংলা ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৯ জানুয়ারী, ২০২১

কুষ্টিয়া দৌলতপুর: কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে আকিজ গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের বিড়ি কারখানায় শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষে আহত হয়েছেন বেশ ক’জন। পরে শ্রমিকরা কয়েক দফা দাবিতে সড়ক অবরোধ করেন। শনিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকদের থামাতে পুলিশ কয়েক রাউন্ড গুলি ছুঁড়ে ও লাঠিচার্জ করে। এসময় অন্তত ৫ জন আহতাবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। উপজেলার হোসেনাবাদে আকিজ বিড়ি কারখানার মূল ফটকের সামনে এ ঘটনা ঘটে। গুলিবিদ্ধ একজন শ্রমিকের নাম শিপুল ইসলাম বলে জানা গেছে।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, সকালে নির্ধারিত সময় পেরিয়ে যাওয়ার পর বেশ কয়েকজন শ্রমিক কারখানায় ঢুকতে যান। এ সময় কারখানার নিরাপত্তাকর্মীরা বাধা দিলে উভয়পক্ষের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠলে কারখানার ম্যানেজার আমিনুল ইসলাম পুলিশ কে খবর দেন। পরে পুলিশ এসে শ্রমিকদের সেখান থেকে সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে।

এতে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ শুরু করে। এক পর্যায়ে পুলিশ প্রথমে লাঠিচার্জ ও পরে কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়ে। এ সময় একজন শ্রমিক গুলিবিদ্ধসহ অন্ততপক্ষে ৫ জন আহত হন। এক পর্যায়ে শ্রমিকরা ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়। পরে হোসেনাবাদ বাজার সংলগ্ন কুষ্টিয়া প্রাগপুর সড়ক অবরোধ করে তারা। এ সময় তাদের সঙ্গে উপজেলার আরেকটি কারখানা ফিলিপনগর কারখানার শ্রমিকরাও যোগ দেয় তাৎক্ষণিকভাবে ম্যানেজার আমিনুল ইসলামে ও অন্যান্য দায়িত্বপ্রাপ্তদের সঙ্গে যোযোগ করা সম্ভব হয়নি।

দৌলতপুর থানার ওসি জহুরুল আলম জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ তিন রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুঁড়েছে , বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে থাকলেও আন্দোলন চলছে। শ্রমিকদের শান্ত করে ঘরে ফেরাতে তাদের সাথে দফায় দফায় আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে দৌলতপুর থানা পুলিশ। মজুরি দ্বিগুণ করা, কর্মঘণ্টা কমানো সহ কয়েক দফা দাবিতে আন্দোলনরত শ্রমিকেরা পুলিশের গুলি চালানো প্রসঙ্গে ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো সংবাদ