1. zillu.akash@gmail.com : admi2017 :
  2. editor@dailynewsbangla.com : Daily NewsBangla : Daily NewsBangla
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিডিও কনফারেন্স দেখার আয়োজন দৌলতপুর উপজেলা প্রশাসন - dailynewsbangla
মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১১:৫৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
বগুড়া আদমদীঘিতে এজেন্ট ব্যাংকে গ্রাহকের টাকা আত্মসাৎ করে ব্যাংক কর্মকর্তা উধাও  নৌপুলিশের নিজ অর্থায়নে জেলেদের মাঝে শুকনা খাবার বিতরণ  হিংসুটে নেতা,কবি,সাহিত্যিক,সাংবাদিক হয়ে দেশ ও জাতির জন্য ভালো কিছু দিতে পারে না রাজশাহীতে প্রান্তিক জনগোষ্ঠিকে আইনী সহায়তায় প্রচার ও প্রসার বাড়াতে হবে: জেলা ও দায়রা জজ কুষ্টিয়া জেলার শ্রেষ্ঠ ওসি নির্বাচিত হয়েছেন ভেড়ামারা থানার অফিসার ইনচার্জ জহুরুল ইসলাম রাজশাহীতে ছোট ভাইয়ের বউকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে ভাসুর কারাগারে গোদাগাড়ীর রফিকুল হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন হলেও ধরা হয়নি আসামী সাত মাসেও সন্ধান মিলছে না প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের চেক বদলগাছীর অন্ধ সাত্তারের হাতে বগুড়ায় সচেতনামূলক ” নো হেলমেট ”  নো ফুয়েল  কার্যক্রম শুরু ভেড়ামারায় ট্রেনের দাবিতে  মানববন্ধন প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিডিও কনফারেন্স দেখার আয়োজন দৌলতপুর উপজেলা প্রশাসন

ডেইলী নিউজ বাংলা ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২৩ জানুয়ারী, ২০২১
দৌলতপুর উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিডিও কনফারেন্স দেখার আয়োজন।

মোঃ জিল্লুর রহমা: বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে ঘোষিত মুজিব বর্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে আধা পাকা ঘর এবং জমি পাবে দেশের প্রায় ৯ লক্ষ মানুষ। চলমান কর্মসূচির প্রথম পর্যায়ে প্রায় ৭০ হাজার পরিবার পাবে আধা পাকা ঘর। এটিই বিশ্বে গৃহহীন মানুষকে বিনামূল্যে ঘর করে দেওয়ার সবচেয়ে বড় কর্মসূচি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধন করবেন।

শনিবার সকাল ১১ টার সময়, কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ সিরাজুল ইসলাম ,বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এজাজ আহমেদ মামুন, সহকারী কমিশনার ভূমি মো. আজগর আলী, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সোনালী আক্তার আলিয়া, ও দৌলতপুর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিযন পরিষদের চেয়ারম্যান সহ অন্যান্যরা

এ সময়, ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘কোনো লোক গৃহহারা থাকবে না। মুজিববর্ষে আমাদের লক্ষ্য, একটি মানুষও ঠিকানাবিহীন, গৃহহারা থাকবে না। ‘আমার খুব আকাঙ্ক্ষা ছিল, নিজ হাতে আপনাদের জমির দলিল তুলে দেই। কিন্তু সেটা পারলাম না এই করোনাভাইরাসের কারণে। শেখ হাসিনা আরো বলেন ‘আমি বিশ্বাস করি, যখন এই মানুষগুলো ঘরে থাকবে, আমার মা-বাবা যাঁরা সারা জীবন এই দেশের জন্য ত্যাগ স্বীকার করেছেন, তাঁদের আত্মা শান্তি পাবে। লাখো শহীদ রক্ত দিয়ে দেশের স্বাধীনতা এনে দিয়েছেন, তাঁদের আত্মা শান্তি পাবে।’

আশ্রয়ন প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত সব স্তরের সরকারি কর্মকর্তাদের ধন্যবাদ জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘৬৬ হাজার ১৮৯টি ঘর আমরা দিচ্ছি। এই ৬৬ হাজার ঘর এত অল্প সময়ের মধ্যে করা অত সহজ কথা নয়। যারা প্রশাসনে আছেন, সরাসরি আপনারা এই ঘরগুলো তৈরি করেছেন বলেই এটা করা সম্ভব হয়েছে এবং মানসম্মত হয়েছে। এ জন্য আমি সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আমাদের সরকারি কর্মচারীরা যেভাবে সবসময় আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করেছেন, এটা অতুলনীয়।

 

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো সংবাদ