1. zillu.akash@gmail.com : admi2017 :
  2. editor@dailynewsbangla.com : Daily NewsBangla : Daily NewsBangla
সাত মাসেও সন্ধান মিলছে না প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের চেক বদলগাছীর অন্ধ সাত্তারের হাতে - dailynewsbangla
সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০৬:৫৪ অপরাহ্ন

সাত মাসেও সন্ধান মিলছে না প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের চেক বদলগাছীর অন্ধ সাত্তারের হাতে

ডেইলী নিউজ বাংলা ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২৫ মে, ২০২৪

সাত মাসেও সন্ধান মিলছে না প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের চেক বদলগাছীর অন্ধ সাত্তারের হাতে

মোহাম্মদ আককাস আলী : সাত মাসেও সন্ধান মিলছে না প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের চেক নওগাঁর বদলগাছীর অন্ধ সাত্তারের হাতে।
অসহায় অন্ধ সাত্তারের নামে বরাদ্ধকৃত অনুদানের চেক তার হাতে পৌঁছার আগেই হাওয়া হয়ে গেল।
৭০ বৎসরের এই বৃদ্ধ অন্ধ সাত্তার গত ৭ মাস ধরে চেকটির সন্ধানে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় ও ইউএনও,র কার্যালয়ে হর্ন হয়ে ছুটা ছুটি করে হাফিয়ে উঠেছেন । তথ্য অনুসন্ধানে জানাযায়, বদলগাছী উপজেলার বড় কাবলা গ্রামের এমাজ উদ্দীনের ছেলে আব্দুস সাত্তার গত ২০২৩ সালে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিল থেকে অর্থিক সাহায্য চেয়ে আবেদন করেন। তার আবেদনের প্রেক্ষিতে ৪০ হাজার টাকা অনুদানের চেক মঞ্জুর করা হয়। প্রধানমন্ত্রীর এসাইনমেন্ট অফিসার আফরোজা মনসুর (গাজী লিপি ) স্বাক্ষরিত গত ২০২৩ সালের ২২ অক্টোবর যাহার স্মারক নং-০৩.০০৭.০৩৭.০০.০০.৪১৫.২০২৩ (অংশ-৪১৪)/১৬৭৮ পত্রের মাধ্যমে আবুল সাত্তার কে ৪০ হাজার টাকার অনুদানের একটি চেক বদলগাছী উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয় অথবা জেলা প্রশাসকের কার্যালয় নওগাঁ হতে গ্রহন করতে বলা হয়। এর পর আব্দুল সাত্তার প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিল হতে প্রাপ্ত পত্র নিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে চেকটি নিতে গেলে ভ‚ক্তভোগী সাত্তার কে জানানো হয় তার চেক এখানে আসেনি। পরে চেকটি নিতে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় নওগাঁতে গেলে সেখানে জানানো হয়, তার চেকটি কে বা কাহারা নিয়ে গেছে। এ সময় সাত্তার তার নামে ইসুকৃত চেক কে নিয়ে গেলো। এমন প্রশ্ন বার বার করলেও সাত্তারকে কোন সদউত্তর দিতে পারেনি ওই অফিসের কর্তাব্যাক্তিরা। সর্ব শেষে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের কর্তারা সাত্তারকে জানান, আপনি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে গিয়ে খোঁজ নিন। নিরুপায় হয়ে ভ‚ক্তভোগী সাত্তার ঢাকায় গিয়ে পত্র হাতে সাবেক এমপি সেলিম তরফদারের বাসভবনে গিয়ে উপস্থিত হয়। এমপি তখন সাত্তারকে বাংলাদেশ সচিবালয়ের ৪ নং গেটে যাওয়ার পরামর্শ দেন। অনেক চেষ্টা আর ঘুরাঘুরি করে সচিবালয় থেকে জানতে পারেন ওই স্মারকে উল্লেখিত ব্যাক্তির নামের চেক নওগাঁ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে। ( চেক নং-৭৮২২৫৩০ তাং-১৯ শে অক্টোবর-২০২৩) সেখান থেকে নিরুপায় হয়ে আবার অন্ধ সাত্তার সম্প্রতি নওগাঁ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে খোঁজ নিয়ে চেকটি পাননি।
সাত্তার বলেন আমি একজন অন্ধ প্রতিবন্ধি মানুষ। আমার নামে অনুদানের চেক কে নিল। আমি ঘুরতে ঘুরতে ক্লান্ত হয়ে পড়েছি। আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষন করছি। এ বিষয়ে গতকাল বদলগাছী উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ের অফিস সহকারী একরামুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে সে জানায়, অন্ধ সাত্তার আমার কাছে বার বার এসেছে কিন্তু সাত্তারের নামে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিল থেকে অনুদানের কোন চেক বা চিঠি কোনটিই আমার হাতে আসেনি।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার (অঃ দাঃ) কামরুল হাসান সোহাগ এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এমনটি হওয়ার কথা না। হয়তো কোন কারনে এখন ও আমাদের হাতে আসেনি। যার নামে চেক ইসু হয়েছে ওই ব্যাক্তি ছাড়া কেউ চেকটি ব্যবহার করতে পারবে না। তবুও বিষয়টি আমি খোঁজ নিয়ে দেখবো।
নওগাঁ জেলা প্রশাসক গোলাম মাওলা বলেন, এমটি হওয়ার কথা না। আপনার কাছে এ সংক্রান্ত কোন কাগজপত্র থাকলে হোয়াটসআ্যাপে আমাকে পাঠিয়ে দিন। তার পর তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো সংবাদ