1. zillu.akash@gmail.com : admi2017 :
  2. editor@dailynewsbangla.com : Daily NewsBangla : Daily NewsBangla
পল্লী বিদ্যুত সমিতির বিভিন্ন অনিয়মের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেছে ভূক্তভোগীরা - dailynewsbangla
মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১০:২৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
বগুড়া আদমদীঘিতে এজেন্ট ব্যাংকে গ্রাহকের টাকা আত্মসাৎ করে ব্যাংক কর্মকর্তা উধাও  নৌপুলিশের নিজ অর্থায়নে জেলেদের মাঝে শুকনা খাবার বিতরণ  হিংসুটে নেতা,কবি,সাহিত্যিক,সাংবাদিক হয়ে দেশ ও জাতির জন্য ভালো কিছু দিতে পারে না রাজশাহীতে প্রান্তিক জনগোষ্ঠিকে আইনী সহায়তায় প্রচার ও প্রসার বাড়াতে হবে: জেলা ও দায়রা জজ কুষ্টিয়া জেলার শ্রেষ্ঠ ওসি নির্বাচিত হয়েছেন ভেড়ামারা থানার অফিসার ইনচার্জ জহুরুল ইসলাম রাজশাহীতে ছোট ভাইয়ের বউকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে ভাসুর কারাগারে গোদাগাড়ীর রফিকুল হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন হলেও ধরা হয়নি আসামী সাত মাসেও সন্ধান মিলছে না প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের চেক বদলগাছীর অন্ধ সাত্তারের হাতে বগুড়ায় সচেতনামূলক ” নো হেলমেট ”  নো ফুয়েল  কার্যক্রম শুরু ভেড়ামারায় ট্রেনের দাবিতে  মানববন্ধন প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত

পল্লী বিদ্যুত সমিতির বিভিন্ন অনিয়মের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেছে ভূক্তভোগীরা

ডেইলী নিউজ বাংলা ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২১ নভেম্বর, ২০২০
নওগাঁর সাপাহারে পল্লী বিদ্যুতের বিভিন্ন অনিয়মের বিরুদ্ধে মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আবু বক্কার,সাপাহার (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর সাপাহারে পল্লী বিদ্যুতের বিভিন্ন অনিয়মের বিরুদ্ধে মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে। দেখাগেছে, শনিবার বিকেল ৪ টায় সাপাহার উপজেলার ভুক্তভোগীরা থানা রোডে পল্লী বিদ্যুতের বিভিন্ন অনিয়মের কথা তুলে ধরে ঘন্টাকাল ব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন তারা। মানব বন্ধনে ভুক্তভোগীরা বলেন, পল্লী বিদ্যুত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা কর্মচারীরা বে -পরোয়া ভাবে লাইন কাটা ব্যাবসায় মেতে উঠেছে।

একটি লাইন কাটার পর অবৈধভাবে প্রতি মিটারে ৬ শ টাকা করে পুন:রায় সংযোগ ফি নিচ্ছে তারা। পূর্বের বিল পরিশোধের কাগজ থাকা সত্বেও কম্পিউটারে এন্ট্রি নাই মর্মে বকেয়া বিল দেখিয়ে লাইন কাটছে সময় না দিয়েই। এক মাস বাঁকী থাকলেও বিল পরিশোধের সময় না দিয়ে লাইন কাটা যেন একটি ঠুনকো সিদ্ধান্তে মনে করছে সাপাহার জোনাল অফিস বিল পরিশোধ করতে গেলে লম্বা লাইনের ভিড়ে বিল প্রদান বিড়ম্বনা হয়রানির স্বীকার হচ্ছে গ্রাহকরা। এছাড়াও পল্লী বিদ্যুত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা কর্মচারীদের উগ্র মেজাজের কারনে তাদের সাথে কথা বলতে পারেন না সাধারণ গ্রাহকরা।

ভুক্তভোগীরা আরো জানান, বহিরাগত লোকজন দিয়ে মিটার রিড নেয় পল্লী বিদ্যুত অফিস কর্তৃপক্ষ। অনেক সময় মিটার না দেখে বিল প্রস্তুত করার ফলে প্রতিমাসে অতিমাত্রায় বাড়তি বিল আসছে। এ বিষয়গুলো নিয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের লোকজনের সঙ্গে কথা বলতে গেলে কোন পাত্তাই দেননা সাধারণ জনগনকে। যাতে করে চরম ভোগান্তির স্বীকার উপজেলার সর্বোস্তরের জনগন। এ বিষয়গুলো নিরসনে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের নজরদারি কামনা করছেন এলাকার ভুক্তভোগীরা। অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের নের্তৃবৃন্দ, গণমাধ্যম কর্মী সহ শতাধিক ভুক্তভোগী উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো সংবাদ