1. zillu.akash@gmail.com : admi2017 :
  2. editor@dailynewsbangla.com : Daily NewsBangla : Daily NewsBangla
বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০৬:৫৬ পূর্বাহ্ন

দশমিনায় ধর্ষনের অভিযোগে আটক ২

ডেইলী নিউজ বাংলা ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর, ২০২১

মোঃবেল্লাল হোসেন: পটুয়াখালীর দশমিনায় শিক্ষার্থীকে ধর্ষনের অভিযোগে মো. মন্টু সিকদার (২৫) নামে যুবকসহ দুইজন আটক করেছে দশমিনা থানা পুলিশ। বুধবার দুপুরে অভিযান চালিয়ে তাকে নিজ বাড়ির সামনে থেকে আটক করে দশমিনা থানা পুলিশ।

আটক মন্টু উপজেলার বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়নের চরহোসনাবাদ গ্রামের মো. হানিফ সিকদারের ছেলে। ধর্ষনের শিকারের অভিযোগ ওঠা ওই শিক্ষার্থী কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের বাসিন্দা। তবে তিনি উপজেলার বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়নের চরহোসনাবাদ গ্রামের নানার বাড়িতে থাকতেন বলে জানা গেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানা যায়, কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের সৌদি প্রবাসি ঝন্টু চেীকদিারের মেয়ে মোঃসুমাইয়া আকতার জয়া। বাবা-মায়ের বিবাহ বিচ্ছেদের পর থেকে মোসাঃ সুমাইয়া আকতার জয়া উপজেলার বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়নের চরহোসনাবাদ গ্রামের সিকাদর বাড়ি(নানা বাড়ি) থাকতেন। নান বাড়ি থাকা অবস্থায় দশমিনা সরকারি মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ২০২১ ইং সনের এস এস সি পরীক্ষার্থী।

উপজেলার বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়নের চরহোসনাবাদ গ্রামের একই বাড়ির মো. মন্টু সিকদার প্রায় দিন প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসে। তাদের মধ্যে দীর্ঘ ৫-৬ মাস প্রেমের সম্পর্ক চলোমান। গত বুধবার দশমিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মন্টু নিয়ে যায় মায়ের অসুস্থ্যতার কথা বলে। দশমিনা স্বাস্থ্য কপ্লেক্সের ওয়ার্ড বয় মোঃ শহিদুল তাদের করোনা ২ নং কেবিন খুলেদেয় এবং বাহির থেকে তালা বদ্ধ করে রাখে।

মোঃ মন্টু কেবিনে জোরপূর্বক দর্শন করে বলে জানান। দর্শিতার ডাকচিৎকারে কর্তব্যরত সেবিকা মোসাঃ বিবি আয়শা এসে কেবিনের দড়জা খুলে ও মন্টু সু-কৌশলে পালিয়ে যায়। উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডাঃ অনিক মিত্র দশমিনা থানায় ফোন করলে ঘটনা স্থল থেকে মোসাঃ সুমাইয়া আকতার জয়াকে উদ্দার করে থনায় নিয়ে যায়
থানা পুলিশ।

এ সংক্রান্ত বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা ডাঃ মোস্তাফিজুর রহমানকে ফোন করলে বার বার ফোর কটে দেয়। দশমিনা থাানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি)মো. মেহেদী হাসান এ প্রতিনিধিকে জানান, ওই শিক্ষার্থী কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের বাসিন্দা। তবে তিনি উপজেলার বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়নের চরহোসনাবাদ গ্রামের নানার বাড়ি থাকতেন।

এ ঘটনায় পালানোর সময় অভিযান চালিয়ে মো. মন্টু সিকদার এবং সহযোগি উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সের ওয়ার্ড বয় মোঃ শহিদুল কে গ্রেফতার করা হয়। ধর্ষনের অভিযোগের ঘটনায় মামলা হয়েছে এবং বিঞ্জাদালতে প্রেরন করা হয়েছে এবং এজাহার কারি মোসাঃ সুমাইয়া আকতার জয়া কে মেডিকেল টেস্টের জন্য পটুয়াখালী নেয়া হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো সংবাদ