1. zillu.akash@gmail.com : admi2017 :
  2. editor@dailynewsbangla.com : Daily NewsBangla : Daily NewsBangla
রবিবার, ২২ মে ২০২২, ১০:১২ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
হাজিদের সেবায় সৌদি যাবেন ৫৩২ কর্মকর্তা। কাশিমপুর কারাগারে নারী হাজতির মৃত্যু। নাগরপুরে ভূমি সেবা সপ্তাহ ২০২২ উদযাপন। দৌলতপুরে ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত কল্পনার ঘর করে দিলেন স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা তাসফিন আব্দুল্লাহ ইসলামী শাসনতন্ত্র দশমিনার উপজেলা শাখার সভাপতিকে ১ মাসের সাজা। দশমনিা বাউফল সড়কে ট্রলি নয়িন্ত্রণ হারেিয় চালকের মৃত্যু। ভুল ব্যাখ্যা দিয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টির পাঁয়তারা করছে বিএনপি : কাদের। নাগরপুরে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি’র বিশেষ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত। শিঘ্রই দৃশ্যমান হবে রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে জোরপূর্বক ধানী জমিতে পুকুর খননের অভিযোগ

দশমিনায় নির্বাচনকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা দোকান ভাংচুর আহত ৩

ডেইলী নিউজ বাংলা ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৩ নভেম্বর, ২০২১

মোঃবেল্লাল হোসেন দশমিনা(পটুয়াখালী) প্রতিনিধি: পটুয়াখালীর দশমিনায় ইউপি নির্বাচনের প্রচারণাকে কেন্দ্র করে ধাওয়া,উত্তেজনা ও হামলার ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার বিকালে উপজেলার বেতাগী-সানকিপুর ইউনিয়নের ঠাকুরহাট ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এসময় ছবি তুলতে গেলে এক সংবাদকর্মীর মোবাইল ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনাও ঘটেছে।সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, ঘটনার দিন উপজেলার বেতাগী-সানকিপুর ইউপি নির্বাচনের প্রচার-প্রচারণার জন্য ওই ইউপির বর্তমান চেয়ারম্যান ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. মহিবুল আলম ঠাকুরহাট বাজারে প্রচারণা চালানোর ঘোষণা দেন।

পরে একই স্থানে প্রচার-প্রচারণা চালাতে নৌকার সমর্থকরা জড়ো হন। এসময় ঠাকুরহাট ব্রিজ সংলগ্ন সড়কে পশ্চিম পাশে অবস্থান করে নৌকার প্রার্থী মো. মশিউর রহমান ঝন্টুর সমর্থকরা লাঠিসোটা নিয়ে উত্তেজনা সৃষ্টি করেন। পুলিশ তাদের বাধা দেয়ার চেষ্টা করলেও নৌকার সমর্থকরা পুলিশের বাধা অতিক্রম করে ব্রিজের দক্ষিণ পাড়ে অবস্থান নেয়া স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের দিকে লাঠিসোটা নিয়ে ছুটে যান। পুলিশ তাদের বার বার ধাওয়া করে ছত্রভঙ্গ করে দিলেও নৌকার সমর্থকরা ফের জড়ো হয়ে উত্তেজনা সৃষ্টি করে।

নৌকার সমর্থকদের হামলায় দশমিনা-পটুয়াখালী রাস্তার যাত্রীবহনকারি হুন্ডাচালক মো. রুবেল (৪৫) ও পথ যাত্রী মোঃ রাসেল (২৫) তিনজন গুরুত্বর আহত হয়েছেন। ভাংচুর করা হয়েছে হুন্ডাচালক মোঃরাসেলের একটি মটরসাইকেল। পরে পুলিশ ও দশমিনা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার ভ্রাম্যমাণ আদালত দুই গ্রুপকে ছত্রভঙ্গ করে দিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেন। এদিকে হামলা ও ধাওয়ার ছবি তুলতে গেলে এক সাংবাদিকের মোবাইল ছিনিয়ে নিয়ে যান এবং নিওন নামে আরও এক সংবাদকর্মীকে গালমন্দ করেন নৌকার লোকজন।

পরে পুলিশ ও ইউএনওর হস্তক্ষেপে মোবাইল ফিরিয়ে দিতে বাধ্য হন তারা । সতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান মহিবুল আলম বলেন, আমার পূর্ব নির্ধারিত ঠাকুরের হাট বাজারে প্রচারের কথা ছিলো কিন্তু নৌকা সমর্থকদের ভয়ে আমরা প্রচার -প্রচারনা করতে পারিনি।

নৌকা প্রার্থীর সমর্থন না থাকায় বহিরাগতদের নিয়ে নির্বাচন আচরন বিধি ভঙ্গ করে নৌকা সমর্থকরা নিরিহ পথযাত্রী সহ হুন্ডা চালকরা রেহাই পচ্ছেনা আক্রমন থেকে। নৌকার প্রার্থী মো. মশিউর রহমাান ঝন্টু বলেন, এ ঘটনার আমি কিছুই জানিনা। দশমিনা থানার ওসি মো. মেহেদী হাসান জানান, পুলিশ দুই প্রার্থীর সমর্থকদের সরিয়ে দিয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো সংবাদ