1. zillu.akash@gmail.com : admi2017 :
  2. editor@dailynewsbangla.com : Daily NewsBangla : Daily NewsBangla
রমজান মাসে বিদ্যুৎতের লাগামহীন লোডশেডিংয়ে অতিষ্ঠ নাগরপুরবাসী - dailynewsbangla
সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ০২:৫৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
সকল ষড়যন্ত্রকারীদের জবাব দিবে দেশের জনগণ– বগুড়ায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী বগুড়ায় এনআরবিসি ব্যাংকের চুরির ঘটনায় গ্রেপ্তার-২ বগুড়ায় নদী থেকে  বালু উত্তোলন করার সময় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান  দৌলতপুরে শিশু বলাৎকারের অভিযোগে মাদ্রাসা শিক্ষক আটক বগুড়ায় ধর্ষণের ঘটনা ধামা চাপা দিতে কিশোরকে হত্যা  অভাবকে হার মানিয়ে মেয়েকে ডাক্তার ছেলেকে ইঞ্জিনিয়ার করলেন দরিদ্র রবি পাহান  বগুড়ায় ট্রাক-অটোরিকশার সংঘর্ষে  চারজন নিহত দশমিনায় কৃষি ও প্রযুক্তি মেলার সমাপনী ও পুরস্কারবিতরণ  দশমিনায় আরসিসি গার্ডার ব্রিজ ও সংযোগ সড়কের উদ্ধোধন  বগুড়ায় পুকুর থেকে এক কিশোরের মরদেহ উদ্ধার 

রমজান মাসে বিদ্যুৎতের লাগামহীন লোডশেডিংয়ে অতিষ্ঠ নাগরপুরবাসী

ডেইলী নিউজ বাংলা ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৬ এপ্রিল, ২০২২

কাজী মোস্তফা রুমি,স্টাফ রিপোর্টার: টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলায় রমজানের শুরু থেকে কয়েকটি ইউনিয়নে বিদ্যুৎ এর ঘন ঘন লোডশেডিংয়ের ফলে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। এদিকে রমজানের সাহরি, ইফতার ও তারাবির নামাজের সময়েও লোডশেডিং হওয়ায় জনসাধারণে তীব্র ক্ষোভ বিরাজ করছে। প্রথম রোজা (৩ এপ্রিল) থেকে মঙ্গলবার (৫ এপ্রিল) পর্যন্ত উপজেলার সদর নঙ্গিনাবাড়ি, দক্ষিণ মামুদনগর, কলমাইদ, ভাড়রা, ধুবড়িয়া, ভাদ্রা, দপ্তিয়রের সারোটিয়াগাজী, নবদিয়া, সহবতপুরের খামার ধল্লা, ডাঙ্গা, বাউসাইদ সহ বিভিন্ন ইউনিয়নের প্রত্যন্ত এলাকার বাসীন্দাদের অভিযোগ পর্যালোচনা করে দেখা গেছে ইফতার ও তারাবির নামাজ আদায় পর্যন্ত অনেক স্থানে বিদ্যুৎ থাকে না এবং কিছু স্থানে বিদ্যুৎ এসেই চলে যায়।

নাগরপুর সদর নঙ্গিনাবাড়ি এলাকার বাসিন্দা স্থানীয় মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম মিয়া বলেন, তারাবির নামাজ ও সাহরির সময় ঠিকমতো বিদ্যুৎ না থাকায় দুর্বিষহ গরমের ভেতর তারাবির নামাজ আদায় করতে হচ্ছে। আবার সাহরিতে খাবার সময়ের ঠিক আগে বিদ্যুৎ নাই। এটি গ্রাহকদের সঙ্গে এক প্রকার তামাশা করা হচ্ছে।

অভিযোগ প্রসঙ্গে টাঙ্গাইল পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির আওতাধীন নাগরপুর জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) মোহাম্মদ মেশবাহুল হক এক হোয়াটসঅ্যাপ বার্তায় জানান, সংশ্লিষ্ট বিদ্যুৎ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান গ্যাস সংকটের ফলে বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে পারছে না বিধায় আমাদের চাহিদা অনুযায়ী বিদ্যুৎ প্রাপ্ত না হওয়ায় সরবরাহে ঘাটতি হচ্ছে। এছাড়াও এই গরমে গ্রাহক চাহিদার চাপ বাড়ায় অতিরিক্ত লোডের কারণে লোডশেডিং হচ্ছে। রমজানে এমন পরিস্থিতির জন্য আমরা আন্তরিক দুঃখিত।

নাগরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ওয়াহিদুজ্জামান মুঠোফোনে বলেন, আমরা নাগরপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতিকে অনুরোধ করেছি যেনো সাহরি ও ইফতার সময়ে বিদ্যুৎ সচল থাকে। তারা জানিয়েছে বিদ্যুৎ উৎপাদন সংকটের কথা এবং তারা আশ্বস্ত করেছে সর্বোচ্চ চেষ্টা করবে সাহরি ও ইফতার সময়ে বিদ্যুৎ সরবরাহ সচল রাখতে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো সংবাদ