1. zillu.akash@gmail.com : admi2017 :
  2. editor@dailynewsbangla.com : Daily NewsBangla : Daily NewsBangla
স্কুল ছাত্র লাবিব আলমাস কে দাওয়াত দিয়ে সিনেমা স্টাইলে মারপিট - dailynewsbangla
শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২, ০৬:৩৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ট্রেনে কাটা পড়ে নিহত ২ আদালতের রায় ও পৈতৃক জমি থেকে উচ্ছেদকল্পে  হামলা ও লুটপাটের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন   বোয়ালমারীতে নারী নির্যাতন মামলায় গ্রেপ্তার প্রধান শিক্ষক আমার সংবাদের প্রতিনিধি কিশোরের বাবা চলে গেলেন না ফেরার দেশে যশোরে প্রথম নির্বাচনী জনসভায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রাজশাহীতে ডায়াবেটিক রোগিদের জন্য উদ্বোধন হলো এ্যাপস “থানায় মামলা না নেওয়ায় আওয়ামী লীগে ক্ষোভ” বঙ্গবন্ধু মুর‌্যালে নাশকতার ঘটনার পাঁচদিন অতিবাহিত হলেও গ্রেপ্তার হয়নি কেউ সালথায় সড়ক দূর্ঘটনায় মোটরসাইকেল চালক নিহত সালথায় দুদিন ব্যাপী বিজ্ঞান মেলার উদ্বোধন  বোয়ালমারীতে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত

স্কুল ছাত্র লাবিব আলমাস কে দাওয়াত দিয়ে সিনেমা স্টাইলে মারপিট

ডেইলী নিউজ বাংলা ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০২০
কুষ্টিয়ায় ৮ম শ্রেণীর ছাত্র লাবিব আলমাস কে দাওয়াতের নাম করে মারধর সোস্যাল মিডিয়াতে (ভিডিও ভাইরাল) গতকাল বিকেলে হাউজিং চাঁদাগারের মাঠে এ ঘটনা ঘটে।

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ায় ৮ম শ্রেণীর ছাত্র লাবিব আলমাস কে দাওয়াতের নাম করে মারধর সোস্যাল মিডিয়াতে (ভিডিও ভাইরাল) খরব পাওয়া গেছে। গতকাল বিকেলে হাউজিং চাঁদাগারের মাঠে এ ঘটনা ঘটে। ছাত্র লাবিবের অভিভাবকের সাথে কথা হলে তিনি জানান আমার ছেলে লাবিব আলমাস কুষ্টিয়া নামকরা একটি স্কুলের ছাত্র। সে স্কুলে অ্যাসাইমেন্ট জমা দিতে যায়।

পরে তার বন্ধু অভি, রাতুলের সাথে দেখা হলে তারা আমার ছেলেকে তাদের বাসায় দাওয়াত আছে বলে জানায়। আমার ছেলে বিকালে তাদের বাসা কোর্টপাড়াতে গেলে ঐখান থেকে রিক্সা যোগে হাউজিং চাঁদাগার মাঠের মধ্য নিয়ে যায়। আগ থেকে ওকে মারার সিদ্ধান্ত করা হয়েছিল। ফলে তাকে একা পেয়ে অভি ও রাতুল চরথাপ্পর দেয়। এলাকার কয়েকজন এটা দেখে থামিয়ে দেন এবং আমার ছেলে রিক্সা যোগে বাড়ীতে পাঠিয়ে দেন। তিনি আরও জানান আল্লাহর রহমতে আমার ছেলে অল্পের জন্য জীবন রক্ষা পেয়েছে।

কয়েকদিন আগে কিশোর গ্যাংরা কুষ্টিয়া এন এস রোড সংলগ্ন হৃদয় নামে একটি ছেলেকে ছুরি দিয়ে আঘাত করার ফলে বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে এখনও ভর্তি হয়ে চিকিৎসাধীন আছে। তবে বিষয়টি তার সুষ্ঠ বিচার চেয়েছেন বলে তিনি জানান। অভি বর্তমানে খালার বাসা থেকে পড়াশোনা করেন। তার গ্রামের বাড়ী দৌলতপুর উপজেলাতে। লাবিব আলমাস জানায় আমি এই বন্ধুর সাথে এই স্কুলে একই সাথে পরতাম। কোন এক খারাপ কাজ করায় ঐ স্কুলের প্রধান শিক্ষক তাকে টিসি দিয়ে বের করে দেন। তারপর থেকে আমাদের কথা হয় ফেসবুকের মাধ্যমে কথা আদান প্রদান করতাম। আমি সকালে স্কুলে অ্যাসাইমেন্ট জমা দিতে গেলে তার সাথে দেখা হয় এবং আমাকে বিকালে দাওয়াতের কথা বলে।

পরে দাওয়াত তো দুরের কথা কোন কিছু ভাবার আগে আমাকে তিন চারজন মিলে এলোপাতাড়ী ভাবে মারপিট করে। কোন রকম ওখান থেকে পালিয়ে বেঁচে যায়। এ বিষয়ে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে স্কুল ছাত্রের প্রধান শিক্ষকের সাথে কথা হলে তিনি জানান লাবিব আলমাস সে আমাদের স্কুলের ৮ম শ্রেণীর ছাত্র। তাকে কি কারণে মারছে বিষয়টি এখনও জানতে পারি নাই। তবে এ বিষয়টি নিয়ে আমি উদ্ধর্তন কর্তৃপক্ষের সাথে কথা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো সংবাদ