1. zillu.akash@gmail.com : admi2017 :
  2. editor@dailynewsbangla.com : Daily NewsBangla : Daily NewsBangla
রাণীশংকৈলে পুকুর থেকে মা, মেয়ে ও ছেলে সহ একই পরিবারের তিন লাশ উদ্ধার - dailynewsbangla
মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১১:২৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
বগুড়া আদমদীঘিতে এজেন্ট ব্যাংকে গ্রাহকের টাকা আত্মসাৎ করে ব্যাংক কর্মকর্তা উধাও  নৌপুলিশের নিজ অর্থায়নে জেলেদের মাঝে শুকনা খাবার বিতরণ  হিংসুটে নেতা,কবি,সাহিত্যিক,সাংবাদিক হয়ে দেশ ও জাতির জন্য ভালো কিছু দিতে পারে না রাজশাহীতে প্রান্তিক জনগোষ্ঠিকে আইনী সহায়তায় প্রচার ও প্রসার বাড়াতে হবে: জেলা ও দায়রা জজ কুষ্টিয়া জেলার শ্রেষ্ঠ ওসি নির্বাচিত হয়েছেন ভেড়ামারা থানার অফিসার ইনচার্জ জহুরুল ইসলাম রাজশাহীতে ছোট ভাইয়ের বউকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে ভাসুর কারাগারে গোদাগাড়ীর রফিকুল হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন হলেও ধরা হয়নি আসামী সাত মাসেও সন্ধান মিলছে না প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের চেক বদলগাছীর অন্ধ সাত্তারের হাতে বগুড়ায় সচেতনামূলক ” নো হেলমেট ”  নো ফুয়েল  কার্যক্রম শুরু ভেড়ামারায় ট্রেনের দাবিতে  মানববন্ধন প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত

রাণীশংকৈলে পুকুর থেকে মা, মেয়ে ও ছেলে সহ একই পরিবারের তিন লাশ উদ্ধার

ডেইলী নিউজ বাংলা ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১৫ অক্টোবর, ২০২০

মাহাবুব আলম রাণীশংকৈল ( ঠাকুরগাও) প্রতিনিধি: ঠাকুরগাওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলার ধর্মগড় ইউনিয়নের শিয়ালডাঙ্গি গ্রামের একটি পুকুর থেকে ১৫ অক্টোবর ভোর ৬ টার দিকে একই পরিবারের মা,মেয়ে ও ছেলে -৩ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। মৃতরা হলেন- আরিদা বেগম( ৩২), আঁখি আকতার(১০) ও আরাফাত(৪)। সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, উপজেলার ধর্মগড়- শিয়ালডাঙ্গি গ্রামের কৃষক ও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ি আকবর
আলি প্রতিদিনের মতো গত ১৪ অক্টোবর রাতে খেয়ে দেয়ে তার স্ত্রী ও ছেলে মেয়েকে নিয়ে ঘরে দুটি বিছানায় ঘুমিয়ে পড়েন।

ভোর ৫ টার দিকে তার বাবা সিরাজুল গোয়াল ঘরে গরু বের করার সময় তার ঘুম ভেঙে যায়। এ সময় আকবর দেখে বিছানায় পাশে তার স্ত্রী নেই। পাশের বিছানায় মেয়েটি ও ছেলেটিও নেই।আকবর আরো জানায় সাংসারিক সংকট নিয়ে ঝগড়া করে এর আগেও তার স্ত্রী একবার গলায় ফাঁস দিতে গিয়েছিল। সে ভোর সাড়ে ৫টার দিকে ব্যস্ত হয়ে সাইকেল নিয়ে তাদেরকে খুঁজতে বের হয়।

আশেপাশে এবং পাশের ভরনিয়া বাজারে তার শ্বশুরবাড়িতে সে তাদের না পেয়ে বাড়ি ফেরার পথেওই পুকুর পাড় থেকে কুলি বাবুল সর্দারের ফোন পায়। বাবুল ফোনে আকবরকে ঐ পুকুরে তার স্ত্রী, মেয়ে ও ছেলের লাশ ভাসছে বলে জানায়।পরে,বাবুল,তোফা ও আকবরের বাবা সিরাজুল মিলে লাশগুলো পুকুর থেকেবাড়িতে নিয়ে আসে।এ সময় ইউপি সদস্য কাবুল ফোনে থানায় খবর দিলে প্রথমে এসআই সফিউল সঙ্গীয় পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে আসেন।

পরে সিনিয়র পুলিশসুপার তোফাজ্জল হোসেন, ওসি এসএম জাহিদ ইকবাল ও ওসি তদন্ত আব্দুল লতিফ শেখ ঘটনাস্থলপরিদর্শন করেন।এ তিন মৃত্যু নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্যেরসৃষ্টি হয়েছে। থানার ওসি এ ব্যাপারে বলেন, এ মৃত্যুরকারন সম্পর্কে এখন কিছু বলা যাচ্ছেনা, লাশ ময়নাতদন্ত সাপেক্ষে এর সঠিক কারন জানা যাবে। ধর্মগড় ইউপি চেয়ারম্যান সফিকুল ইসলাম মুকুল এ মৃত্যুকে রহস্যজনক মনে করেন। এবং এর সঙ্গে কেউ জড়িতথাকলে তদন্ত সাপেক্ষে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো সংবাদ