1. zillu.akash@gmail.com : admi2017 :
  2. editor@dailynewsbangla.com : Daily NewsBangla : Daily NewsBangla
সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১, ১০:৪৮ অপরাহ্ন

কুয়াকাটায় নির্মাণ করা হচ্ছে বালুর ভাস্কর্য

ডেইলী নিউজ বাংলা ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১৫ মার্চ, ২০২১
মানচিত্রের ঠিক মাঝখানে জাতির পিতার বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের আকৃতি।

জাতীয় শিশু দিবস ও জন্মশতবর্ষ উদযাপন উপলক্ষে এই প্রথম কুয়াকাটায় নির্মাণ করা হচ্ছে বালুর ভাস্কর্য


সম্ভু সাহা,পটুয়াখালী: জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর জন্মদিন, জাতীয় শিশু দিবস ও জন্মশতবর্ষ উদযাপন উপলক্ষে, সাগরকন্যা কুয়াকাটার সমুদ্র সৈকতের জিরো পয়েন্টের ১০০ গজ পূর্বদিকে প্রায় ৪০ ফুট দৈর্ঘ্য ও ৮ ফুট প্রশস্ত এ ভাস্কর্যে নির্মান করা হয়েছে। এখানে ১৯৫২ সালের বাঙালির ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস। ১৯৬৬ সালে ৬ দফা দাবি।

১৯৬৯ সালের গণআন্দোলন। ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস। পটুয়াখালী জেলা পুলিশের উদ্যোগে নির্মিত এ ভাস্কর্য উদ্বোধন করা হবে আগামী ১৭ মার্চ। খুলনা ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগের ৬জন শিক্ষার্থী গত ৯ মার্চ থেকে অক্লান্ত পরিশ্রম করে ইতোমধ্যে বালু দিয়ে ফুটিয়ে তুলেছেন বাংলাদেশের মানচিত্র। মানচিত্রের ঠিক মাঝখানে জাতির পিতার বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের আকৃতি।

এক পাশে ভাষা আন্দোলনের মিছিল। অন্য পাশে ৬ দফাসহ মুক্তিযুদ্ধের প্রেক্ষাপট। আর ভাস্কর্যের উপরে ও নিচে বালু দিয়ে লেখা হয়েছে, আমার সোনার বাংলা। জয় বাংলা। রক্ত দিয়ে নাম লিখেছি। আমার মায়ের ভাষা, রাষ্ট্রভাষা বাংলা চাই। এই প্রথম কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতে নির্মিত বালুর ভাস্কর্যটি দেখতে ভিড় জমাচ্ছেন স্থানীয় বাসিন্দাসহ কুয়াকাটায় বেড়াতে আসা পর্যটক।

বরিশাল থেকে কুয়াকাটায় আসা পর্যটক ফরিদা ইয়াসমিন বলেন, প্রতি বছর কুয়াকাটায় বেরাতে আসা হয়। এবার এসে দেখলাম সৈকতে বালু দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের ভাস্কর্য নির্মাণ করা হচ্ছে। এটা খুবই ভালো উদ্দোগ। ধন্যবাদ জানাই পটুয়াখালী পুলিশ সুপারকে। আমি মনেকরি এ থেকে নতুন প্রজন্ম অনেক কিছুই জানতে পারবে। আর সৈকতে ভ্রমণে আসা দর্শনার্থীরা এ ভাস্কর্য দেখে আনন্দিত হবে। তবে এ ভাস্কর্যটি স্থায়ীভাবে সংরক্ষণ করা গেলে ইতিবাচক প্রভাব পড়বে পর্যটন শিল্পে।

পটুয়াখালী থেকে ভাস্কর্য দেখতে আসা মামুন মুধা বলেন, এখানে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর আকৃতি, ৫২ ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে ৭১ এর মুক্তিযুদ্ধ, ৬৯ এর গণআন্দোলনের প্রেক্ষাপট ভাস্কর্যের মাধ্যমে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। কুয়াকাটার সৈকতে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য তৈরি করায় পর্যটকসহ স্থানীয় শিক্ষার্থীরা দেখে বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশের ইতিহাস সম্পর্কে জানতে পারবেন, যা নতুন প্রজন্মকে আশাবাদী করবে ও স্বপ্ন দেখাবে।

ভাস্কর্য নির্মাতা দলের প্রধান (রাবি) চারুকলা অনুষদের শিক্ষার্থী অনুপম কর বলেন, গত ৯ মার্চ মঙ্গলবার থেকে পটুয়াখালী জেলা পুলিশ সুপারের উদ্যোগে এ কাজটি শুরু করেছি। আশা করি, ঠিক সময়ের মধ্যে নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করতে পারব। ভাস্কর্য নির্মাতা দলের সদস্য (খুবি) চারুকলা অনুষদের শিক্ষার্থী সানি কুমার দাস নিলয় বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকীতে রাজশাহী ও খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছয়জন শিক্ষার্থী অক্লান্ত পরিশ্রম করে ভাস্কর্য নির্মাণে কাজ করছি।

পটুয়াখালী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ (পিপিএম) বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন, জাতীয় শিশু দিবস ও জন্মশতবর্ষ উদযাপন উপলক্ষে ১৭ মার্চ এ ভাস্কর্যটি উদ্বোধন করা হবে। ২৬ মার্চ পর্যন্ত কুয়াকাটায় পর্যটকসহ স্থানীয়দের জন্য এটি উন্মুক্ত রাখা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো সংবাদ