1. [email protected] : admi2017 :
  2. [email protected] : Daily NewsBangla : Daily NewsBangla
সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ০৬:৩৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
দশমিনা মা ইলিশ রক্ষার কঠোর অবস্হানে দশমিনা উপজেলা নৌ-পুলিশ ধর্ষক নারী নির্যাতন কারীদের জন্য আ’লীগের দরজা চিরতরে বন্ধ: সেতুমন্ত্রী ও বায়দুল কাদের দশমিনায় ৬ জেলেকে ১ বছর করে কারাদণ্ড গোয়ালন্দে পুজা মন্ডপ পরিদর্শন করলেন এমপি কেরামত আলী অস্তিত্ব সংকটে নীলফামারীর বাঁশ শিল্প, দুর্দিনে শিল্পীরা নির্বাচিত হলে ঢাকা ১৮ আসনকে আধুনিক করবো: আওয়ামী লীগ প্রার্থী হাবিব মিথ্যা সংবাদের প্রতিবাদে যুবলীগ নেতার সংবাদ সম্মেলন আওয়ামীলীগ কখনই দলীয় পদ বেচাকেনা করেনা: মাহাবুব উল আলম হানিফ পোরশা উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ শাহ্ মঞ্জুর মোরশেদ চৌধুরী এর ৫০তম জন্মবার্ষিকী দৌলতপুর আজিজ মেম্বারের আত্মার মাগফিরাত কামনায় মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

সাপাহারে পূণর্ভবা নদীর ভাঙন রোধে পাড়ে বাঁধ নির্মাণের দাবি

ডেইলী নিউজ বাংলা ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১৪ অক্টোবর, ২০২০

আবু বক্কার, সাপাহার ( নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর সাপাহার উপজেলার পাতাড়ী ইউনিয়নের বলদিয়াঘাট নদীর ভাঙন রোধে পাড়ে বাঁধ নির্মাণের দাবি জানিয়েছে স্থানীয়রা। মঙ্গলবার এসংক্রান্ত একটি লিখিত আবেদনের প্রেক্ষিতে এই দাবি জানানো হয়। একদল সাংবাদিক সরেজমিনে গিয়ে স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানাগেছে, প্রতি বছর বর্ষাকালে উজান থেকে নেমে আসা ঢলে বলদিয়াঘাট শহীদ শেখ রাসেল সেতুর পূর্ব-দক্ষিন পাড়টিতে ভাঙন শুরু হয়।

বিগত ২০ বছরে ভাঙনের কবলে পড়ে রাস্তা, ঘর-বাড়ী ভাঙতে ভাঙতে একটি ওয়াক্তিয়া মসজিদ ও ভিটেমাটিসহ প্রায় ৫০ একর জমি নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। ইব্রাহিম হোসেন, এনামুল হক, শফিকুল ইসলাম, নাজমুল হক, সফিকুল ইসলাম, ফজলুর রহমান, রেজুয়ান হোসেন, সেতাবুর রহমান, আতাউর রহমান, মিজান রহমান, আজিজুল ইসলামসহ অন্তত অর্ধশত ঘর-বাড়ী বসতভিটা নদী গর্ভে তলিয়ে যাওয়ায় সর্বস্ব হরিয়ে নিজ গ্রাম ছেড়ে বিভিন্ন স্থানে চলে গেছেন।

এই পরিস্থিতি উত্তরণে স্থানীয় প্রশাসন, পানি উন্নয়ন বোর্ড এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য ও খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপির সুদৃষ্টি কামনা করেন স্থানীয়রা। বলদিয়াঘাট গ্রামের বাসিন্দা আলতাস আলী, লুৎফর রহমান, রফিকুল ইসলাম, জাকারিয়া হোসেন, বাদশাহ, শহিদুল ও মনিরুল ইসলাম বলেন, আমরা নদী পাড়ে অধিকাংশ সংখ্যক খেটে খাওয়া দিনমজুর এবং অল্পসংখ্যক কৃষক দীর্ঘ বেশ কয়েক বছর ধরে বসবাস করে আসতেছি।

এভাবে নদী ভাঙতে থাকলে হয়ত আগামী কয়েক বছরের মধ্যে আমাদেরকে গৃহহারা হয়ে যেতে হবে। বর্তমানে নদী পাড়ে প্রায় শতাধিক পরিবার ভাঙন ঝুঁকিতে রয়েছে যাতে করে বলদিয়াঘাট শহীদ শেখ রাসেল সেতুর পূর্ব-দক্ষিন নদী পাড়ে বাঁধ নির্মান অতিব জরুরি প্রয়োজন হয়ে পড়েছে। পাতাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান মুকুল মিয়া বলেন, এবছর নদী পাড়ে গ্রামটির যে অবস্থা মামরা দেখেছি, তাতে দ্রুত ব্লক দিয়ে বাঁধ নির্মান করা না গেলে অনেক পরিবার চরম বিপদগ্রস্ত হতে পারে। আমরা আশা করছি স্থানীয় সংসদ সদস্য ও খাদ্যমন্ত্রী সাধান চন্দ্র মজুমদার বিষয়টি সমাধানে সুদৃষ্টিতে দেখবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো সংবাদ