1. zillu.akash@gmail.com : admi2017 :
  2. editor@dailynewsbangla.com : Daily NewsBangla : Daily NewsBangla
সাপাহারে পূণর্ভবা নদীর ভাঙন রোধে পাড়ে বাঁধ নির্মাণের দাবি - dailynewsbangla
বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০১:৩২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
নওগাঁয় মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত উপজেলা প্রশাসনের উদ্যেগে মহান একুশে ফেব্রæয়ারি ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদয্াপন পুঠিয়ায় চুরির অপবাদ দেওয়ায় নৈশ্য প্রহরীর আত্মহত্যা  দৌলতপুরে পি,এস,এস মাঃ বিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে তদন্ত ছাড়াই মামলা নিয়ে বিপাকে পুলিশ দৌলতপুরে শরীফ বিশ্বাস সহ ৩ সাংবাদিকের উপর হামলার প্রতিবাদে সাংবাদিকদের মানববন্ধন বোয়ালমারীতে মাদকসহ গ্রেপ্তার দুই র‌্যাব-৫ এর হাতে ডলফিন এনজিও‘র মালিক আব্দুর রাজ্জাকসহ ৬ জন আটক দশমিনায় এসআইয়ের বিরুদ্ধে ঘুষ দাবির অভিযোগ সাংবাদিকের স্ত্রীর দুর্নীতি রোধে ভুমি অফিসে আইডি কার্ড বিতরণ

সাপাহারে পূণর্ভবা নদীর ভাঙন রোধে পাড়ে বাঁধ নির্মাণের দাবি

ডেইলী নিউজ বাংলা ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১৪ অক্টোবর, ২০২০

আবু বক্কার, সাপাহার ( নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর সাপাহার উপজেলার পাতাড়ী ইউনিয়নের বলদিয়াঘাট নদীর ভাঙন রোধে পাড়ে বাঁধ নির্মাণের দাবি জানিয়েছে স্থানীয়রা। মঙ্গলবার এসংক্রান্ত একটি লিখিত আবেদনের প্রেক্ষিতে এই দাবি জানানো হয়। একদল সাংবাদিক সরেজমিনে গিয়ে স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানাগেছে, প্রতি বছর বর্ষাকালে উজান থেকে নেমে আসা ঢলে বলদিয়াঘাট শহীদ শেখ রাসেল সেতুর পূর্ব-দক্ষিন পাড়টিতে ভাঙন শুরু হয়।

বিগত ২০ বছরে ভাঙনের কবলে পড়ে রাস্তা, ঘর-বাড়ী ভাঙতে ভাঙতে একটি ওয়াক্তিয়া মসজিদ ও ভিটেমাটিসহ প্রায় ৫০ একর জমি নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। ইব্রাহিম হোসেন, এনামুল হক, শফিকুল ইসলাম, নাজমুল হক, সফিকুল ইসলাম, ফজলুর রহমান, রেজুয়ান হোসেন, সেতাবুর রহমান, আতাউর রহমান, মিজান রহমান, আজিজুল ইসলামসহ অন্তত অর্ধশত ঘর-বাড়ী বসতভিটা নদী গর্ভে তলিয়ে যাওয়ায় সর্বস্ব হরিয়ে নিজ গ্রাম ছেড়ে বিভিন্ন স্থানে চলে গেছেন।

এই পরিস্থিতি উত্তরণে স্থানীয় প্রশাসন, পানি উন্নয়ন বোর্ড এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য ও খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপির সুদৃষ্টি কামনা করেন স্থানীয়রা। বলদিয়াঘাট গ্রামের বাসিন্দা আলতাস আলী, লুৎফর রহমান, রফিকুল ইসলাম, জাকারিয়া হোসেন, বাদশাহ, শহিদুল ও মনিরুল ইসলাম বলেন, আমরা নদী পাড়ে অধিকাংশ সংখ্যক খেটে খাওয়া দিনমজুর এবং অল্পসংখ্যক কৃষক দীর্ঘ বেশ কয়েক বছর ধরে বসবাস করে আসতেছি।

এভাবে নদী ভাঙতে থাকলে হয়ত আগামী কয়েক বছরের মধ্যে আমাদেরকে গৃহহারা হয়ে যেতে হবে। বর্তমানে নদী পাড়ে প্রায় শতাধিক পরিবার ভাঙন ঝুঁকিতে রয়েছে যাতে করে বলদিয়াঘাট শহীদ শেখ রাসেল সেতুর পূর্ব-দক্ষিন নদী পাড়ে বাঁধ নির্মান অতিব জরুরি প্রয়োজন হয়ে পড়েছে। পাতাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান মুকুল মিয়া বলেন, এবছর নদী পাড়ে গ্রামটির যে অবস্থা মামরা দেখেছি, তাতে দ্রুত ব্লক দিয়ে বাঁধ নির্মান করা না গেলে অনেক পরিবার চরম বিপদগ্রস্ত হতে পারে। আমরা আশা করছি স্থানীয় সংসদ সদস্য ও খাদ্যমন্ত্রী সাধান চন্দ্র মজুমদার বিষয়টি সমাধানে সুদৃষ্টিতে দেখবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো সংবাদ